Breaking News

টানা বর্ষণে বান্দরবানের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

ভবান্দরবান প্রতিনিধি,

টানা অবিরাম ভারী বৃষ্টিপাতে সাঙ্গু ও মাতামুহুরী নদীর পানি বৃদ্ধি হয়ে বান্দরবানে নিম্নাঞ্চলের বাড়িঘর প্লাবিত হয়েছে। ভারি বর্ষণ অব্যাহত থাকায় দেখা দিয়েছে পাহাড় ধস ও বন্যার আশঙ্কা। ইতিমধ্যে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে কয়েক হাজার পরিবার। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) সকালে জেলা শহরের বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে এই চিত্র দেখা যায়।

এদিকে পাহাড় ধসের ঝুঁকিতে থাকা বসবাসকারীদের নিরাপদ স্থানে সরে যাওয়ার জন্য মাইকিং করেছে জেলা প্রশাসন। তবে বিভিন্ন এলাকায় পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটলেও কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, দুইদিন টানা ভারি বর্ষণে বান্দরবান শহরের কালাঘাটা, আর্মি পাড়া, মেম্বার পাড়া, বনানী স মিল, ইসলামপুর, বাসট্যান্ডসহ সাঙ্গু নদী তীরবর্তী বসবাসরত বাড়িঘর এবং দোকানে হাঁটুর উপর হতে কোমর পরিমাণ পানি উঠে তলিয়ে গেছে। ভারি বর্ষণের ফলে মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা বিঘ্নিত হয়ে পড়েছে। লকডাউনের এ সময় দুর্যোগপূর্ণ আবহওয়ায় নিত্য খেটে খাওয়া মানুষের দুর্ভোগ অবর্ণনীয় অবস্থায় পৌঁছেছে।

বৃষ্টি না থামলে নদীর পানি বিপতসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ার আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।

অপরদিকে পানির নিচে সড়ক তলিয়ে যাওয়ায় জেলা সদরের সাথে রোংয়াছড়ি, রুমা, থানচি, লামা ও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে।

এ ব্যাপারে বান্দরবান জেলা প্রশাসক ইয়াসমিন পারভীন তিবরিজি জানান, কয়েকদিন ধরে ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে বন্যা ও পাহাড় ধসের আশঙ্কা রয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে জনগণকে নিরাপদ স্থানে সরে যাওয়ার জন্য বলা হয়েছে এবং আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থানের জন্য অনুরোধ জানানো হচ্ছে। এরই মধ্যে জেলায় সর্বমোট ১৪০টি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

About খোলা বার্তা নিউজ ডেস্ক

Check Also

লামায় ত্রিপুরা কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ।

সংবাদ দাতা,  লামা। বান্দরবানের লামায় প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রেমিকের দৈহিক সম্পর্কের কারনে অন্তঃসত্ত্বা ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের …